| by রিতম শাঁখারী | No comments

ভালো কখনো থাকতে হয় না। নজর লাগে!

ভালো আছেন? জানি বরাবরের মত বলবেন, ভালো আছি। ওহ, আমি কেমন আছি? না ভাই, ভালো নাই। ভালো আছি বলতে কষ্ট হয়।

মূল কষ্টটা কোথায় যানেন? আপনি ভাল আছি বলে, কখনো ভালো থাকতে পারবেন না। বিশ্বাস করেন আর নাই করেন, এটাই সত্য। কারণ, আপনি যাকে বলছেন, তার নজরটাই লেগে যায়। খুব বিপদ রে ভাই… ভয়ে ভয়ে থাকতে হয়। কে কখন নজর দিয়ে দেয়।

যাইহোক, কুশল বিনিময় অনেক হলো। বেশি খোজ খবর নেয়া আবার, ওতি ভক্তি চোরের লক্ষণের মত হয়ে যায়। অনেক দিন পরে লিখছি। মাঝে বেশকিছু দিন চুপ চাপ ছিলাম। লিখা হয়নি তেমন কিছু। নিজেকে অনেকটাই, ঘরের ভিতর গুটিয়ে রেখেছি। চারপাশটা কেমন যেন ফ্যাকাসে। ভেবেছিলাম, মহারাজাকে নিয়ে লং কোথাও ঘুরে আসবো। সেটাও হয়ে উঠছে না। আপনারাত মনে হয় মহারাজাকে চিনেন না? এর মাঝে আমি একটি নতুন বাইক কিনি। Yamaha FZS V3। বাইকের নাম মহারাজা। ওকে নিয়ে বিস্তারিত আরেকদিন লিখবো।

যেটা বলছিলাম, ফ্যাকাসে লাগছে। মনে হচ্ছে, নজরটা জোরালো ভাবেই লেগেছে 😛

একবার যদি পাইতাম রে ভাই, যে নজরটা দিয়েছে… তারে ১০ টাকা দিয়ে বলতাম, ভাই দূরে গিয়া মর। হাহাহাহা…

আপনাদের আর কি বলবো বলেন? বলার মত অনেক কিছুই আছে। কিন্তু লিখতে ইচ্ছে হচ্ছে না। তবে চিন্তা নিবেন না। এই চিন্তা আমার। আমি নিজ দায়িত্বে লিখবো।

 

mm
রিতম শাঁখারী

বয়সে তেমন একটা বড় নয়। ছোট খাটো একজন মানুষ বলতে পারেন। নিজের সম্পর্কে বড়াই করে বলার মত কিছু এখনো অর্জন করতে পারিনি। ব্যাক্তিগত কিছু বলতে চাইলে, বলতে হবে এখনো বিয়েসাধি করি নাই, তাই প্রেমিকার কথা জানতে চাইয়া লজ্জা দিবেন না। বাঙালী ঘরের একজন ছোটখাটো গরীব মানুষ, তাই বাংলার খাবারটাই বেশি পছন্দ করি। আর সামাজিক প্রেক্ষাপটে আমি পুরোটাই ভিন্য। সমাজের মানুষ যখন ঘুম থেকে ওঠে তখন আমি কম্পিউটার শাটডাউন করে ঘুমাতে যাই। রাতকে ভালোবাসি, সেকারণে রাতের সৌন্দর্যকে উপভোগ করার চেষ্টা করি।